শুক্রবার, ৭ই আগস্ট, ২০২০ ইং ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

স্বাস্থ্য সচেতনতার মধ্যে ঈদ উদযাপন

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিস্থিতিতে রাজধানীসহ সারাদেশের মসজিদে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শনিবার ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। পশু কোরবানিসহ ঈদ উদযাপনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে দেখা গেছে।

সরকারের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজসহ ঈদ উদযাপনের কথা বলা হয়।

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল ৭টায় ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। বায়তুল মোকাররমে মোট ৫টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। মুসল্লিরা মুখে মাস্ক পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজ আদায় করেন। মসজিদের ভেতর জায়গা না হওয়ায় অনেকে মসজিদের বাইরে ঈদের নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে সবাই কোলাকুলি থেকে বিরত ছিলেন।

ঢাকা শহর ঘুরে দেখা গেছে কোরবানীর সময়ও প্রায় সবার মুখে মাস্ক ছিল। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতেও সচেতন ছিলেন অনেকে। এবার করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকির কারণে ফ্ল্যাট বাড়িগুলোতে কোরবানী দেননি অনেকে। অন্যবারের তুলনায় গরু বিক্রিও হয়েছে কম।

বেশিরভাগ কোরবানী হয়েছে খোলা জায়গায়। সিটি করপোরেশনকেও বেশ তৎপর দেখা গেছে। দুপুরের মধ্যেই তারা কোরবানীর বর্জ্য অপসারণে অনেকটাই সক্ষমতা দেখিয়েছেন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) জানিয়েছে, কোরবানির বর্জ্য অপসারণে তাদের ১৮ হাজার কর্মী মাঠে রয়েছে।

সাত শ’র বেশি যানবাহন ব্যবহার করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বর্জ্য সরিয়ে ঢাকাকে সাফ করার পরিকল্পনা নিয়েছে নগর কর্তৃপক্ষ।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করার জন্য অনুরোধ করে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এ নিয়ে গত ১৪ জুলাই ধর্ম মন্ত্রণালয় এক নির্দেশনা জারি করে। সেখানে বলা হয়, ‘চলতি বছর ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে ঈদের নামাজের জামাত কাছের মসজিদে আদায় করার জন্য অনুরোধ করা হলো।’

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে নামাজ আদায় করার ব্যাপারে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অনুরোধ, ঈদের নামাজ আদায়ের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগে জীবাণুনাশক রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনার সংক্রমণ রোধে অজু করার স্থানে সাবান অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। মসজিদের প্রবেশপথে সাবান অথবা হ্যান্ডস্যানিটাইজার রাখতে হবে। যাঁরা মসজিদে নামাজ আদায় করতে আসবেন, তারা যেন বাসা থেকে অজু করে আসেন। অজু করার সময় ২০ সেকেন্ড সময় ধরে হাত ধুতে হবে। মসজিদে নামাজ আদায় করতে হলে অবশ্যই মাস্ক পরে আসতে হবে।