fr-filmstreaming.com filmstreaming

বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দোকানের সামনে সুরক্ষারেখা

news-image

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের না হতে প্রশাসনের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। সকলকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সারাদেশের ন্যায় কুমিল্লার লাকসামে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রীর দোকান ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। ফার্মেসী, মুদি দোকান ও কাঁচাবাজারে ভিড় বেড়েছে। তাই লাকসামের প্রসিদ্ধ ব্যবসাকেন্দ্র দৌলতগঞ্জ বাজারে ক্রেতাদের মধ্যে কম করে একমিটার দূরত্ব থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করতে সাদা রং দিয়ে রাস্তার ওপর সুরক্ষারেখা এঁকে দিয়েছেন পৌর মেয়র অধ্যাপক আবুল খায়ের।

তাকে সহযোগিতা করেন ভিক্টোরি অব হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশনের সভাপতি ফয়সাল হোসেন বাপ্পীসহ সংগঠনের অন্যান্য স্বেচ্ছাসেবীরা।

পৌর মেয়র আবুল খায়ের সাদা রং দিয়ে সুরক্ষারেখা এঁকে দিয়ে তাতে ক্রেতাদের দাঁড়ানোর জন্য উৎসাহিত করেন। সামনের দিক থেকে একটি সুরক্ষারেখার জায়গা ফাঁকা হলেই পরেরজন এগিয়ে যাচ্ছেন। এভাবেই শহরের ফার্মেসি, মুদি দোকান ও কাঁচাবাজার থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করছেন ক্রেতারা।

প্রবীণ সাংবাদিক আবদুল কুদ্দুস বলেন, করোনাভাইরাস আতঙ্কে গোটা বিশ্ব। বাঁচতে হলে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। কিন্তু অনেকে সেটা মানছে না। পৌর মেয়র অধ্যাপক আবুল খায়ের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে সাদা রং দিয়ে যেভাবে সুরক্ষারেখা এঁকে দিয়েছেন তা প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

লাকসাম পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক আবুল খায়ের বলেন, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে আমাদের সকলকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে লাকসামের প্রধান ব্যবসাকেন্দ্র দৌলতগঞ্জ বাজারের ফার্মেসী, মুদি দোকান ও কাঁচাবাজারে সুরক্ষারেখা এঁকে দিয়েছি। প্রতিটি দোকানের সামনে কমপক্ষে ৭/৮টি সুরক্ষারেখা এঁকে দিয়েছি। সবাইকে সচেতন করতে লাকসাম পৌরসভার উদ্যোগে কাজটি করেছি।