মঙ্গলবার, ৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

উন্মোচন হলো আজহারীর গাড়ির আসল তথ্য

news-image

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের ইসলামী বয়ানের জগতে ধুমকেতুর মতো এসেছিলেন ড. মিজানুর রহমান আজহারী। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তিনি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন দেশের প্রতিটি কোণে সব বয়সের মানুষের কাছে। এর মধ্যেই লক্ষ্য করা গেছে, তরুণদের মধ্যে আজহারীর জনপ্রিয়তা প্রবল।

দেখা যায় তাঁর মাহফিলে আসছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ, চায়ের দোকানে বাজছে তাঁর বয়ান, ফেসবুক ও ইউটিউব সয়লাব আজহারীর মাহফিলের ভিডিওতে। এমতাবস্থায়ই শুরু হয় তাঁকে ঘিরে বিতর্ক, হঠাৎ করেই তিনি দেশ ছেড়ে পাড়ি জমান মালয়েশিয়াতে।

তবে মালয়েশিয়া চলে গেলেও সমালোচনা যেন পিছুই ছাড়ছে না তার। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে আজহারীর গাড়ি চালানোর কিছু দৃশ্য।

ছবিতে দেখা গেছে, মিজানুর রহমান আজহারী একটি ‘বেন্টলি’ গাড়ি চালাচ্ছেন যার বাজারমূল্য কমপক্ষে ৫ কোটি টাকা।

ছবিগুলো আজহারী বিরোধী হিসেবে পরিচিত বিভিন্ন ফেজবুক পেজ ও আইডি থেকে পোস্ট করে প্রশ্ন ছোড়া করা হচ্ছে। ইসলামের একজন দাঈ হয়ে মালয়েশিয়ায় কি করে এতো দামি গাড়ি কেনেন আজহারী? মাহফিলে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা:) ও সাহাবাদের ত্যাগি ও সাদাসিধে জীবনের কথা বলে মালয়েশিয়ায় কি তিনি বিলাসবহুল জীবনযাপন করছেন?

সমালোচনাকারীরা বলছেন, দেশে কোটি কোটি টাকা কামিয়ে বিলাসবহুল জীবনযাপন করতেই মালয়েশিয়ায় চলে গেছেন আজহারী। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে আজহারীভক্তদের সঙ্গে তার বিরোধীরা তুমুল বাকবিতণ্ডায় মেতেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ বিলাসবহুল গাড়ি আজহারীর নয় এবং তিনি মালয়েশিয়ায় গিয়ে এ গাড়ি চালাননি। ছবিগুলো তার সম্প্রতি তোলা নয়ও বলে জানা গেছে। মূলত এ গাড়িটি আজহারী চালিয়েছেন সিঙ্গাপুরে। আর গাড়ির মালিকের নাম – সাহিদুজ্জামান টরিক।

সাহিদুজ্জামান টরিকের এক ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, সাহিদুজ্জামান টরিক সিঙ্গাপুর-বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্সের সাবেক সভাপতি। তার দেশের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলায়। ছয়-সাত মাস আগে টরিকের নিমন্ত্রণে এক মাহফিলে যোগ দিতে সিঙ্গাপুরে যান মিজানুর রহমান আজহারী। সে সময় সেখানে টরিকের এই গাড়িতে চড়ে সিঙ্গাপুর ঘুড়েন। তিনি নিজেও অল্প কিছু সময় গাড়ি চালান। সে সময় তোলা ছবিগুলোই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ব্যক্তি বলেন, গাড়ির নেমপ্লেট দেখলেই বোঝা যায় এটা মালয়েশিয়ার কোনো গাড়ি নয়। এখানে SJZ888IR লেখা। আর এমন নেমপ্লেট সিঙ্গাপুরের গাড়িগুলোর হয়ে থাকে।

উল্লেখ্য, মিজানুর রহমান আজহারীর সঙ্গে সাহিদুজ্জামান টরিকের বন্ধুত্ব রয়েছে। গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার পাঁচকমলাপুর দারুল উলুম হাফেজিয়া কওমি মাদ্রাসায় তাফসিরুল কোরআন মাহফিলে আজহারী যোগ দিয়েছিলেন। ওই মাদ্রাসার পরিচালকই সাহিদুজ্জামান টরিক।

সেদিন প্রায় ৫০ বিঘা জমিতে মাহফিলের আয়োজন করা হয়। আজহারীর বক্তব্যের সময় সাহিদুজ্জামান টরিককে তার পাশেই দেখা গেছে।

আলোচনার শুরুতে আজহারী বলেন, এ মাহফিলের আয়োজক সাহিদুজ্জামান টরিক আমার বড়ভাই। তিনি একজন শিল্পপতি ও সিঙ্গাপুর বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্সের সাবেক সভাপতি। সিঙ্গাপুর গেলে আমি তার কাছেই থাকি। গত কোরবানি ঈদে সেখানে তার তত্ত্বাবধানে বেশ কয়েকটি ইসলামি প্রোগ্রামে অংশ নিয়েছি।

এ জাতীয় আরও খবর

দেশে নানামুখী অর্থনৈতিক সমস্যার মোকাবিলা করতে হতে পারে : অর্থমন্ত্রী

করোনা মোকাবিলা : প্রাণ-আরএফএল-এর আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত

২৪ ঘণ্টায় স্পেনে মারা গেলেন আরও ৮৪৯ জন

কুমিল্লায় প্রাইভেটকার খালে পড়ে নিহত ৩

সেতু ছুঁয়ে দেখার অপেক্ষা

ত্রাণ নিয়ে অনিয়ম-দুর্নীতি সহ্য করা হবে না, বললেন প্রধানমন্ত্রী

পাঁচশত পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী দিলো ঢাকা জেলা প্রশাসন

প্রধানমন্ত্রীকে জানালেন করোনা থেকে কীভাবে সুস্থ হলেন

ধর্ম পরিবর্তন করায় হত্যার হুমকি নিরাপত্তার স্বার্থে মতিঝিল থানায় জিডি

যুক্তরাষ্ট্রের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ লকডাউনে

অলিগলি সরব, রাজপথ নিরব

রংপুর বিভাগের হোম কোয়ারেন্টাইনে ৩ হাজার ১১৫ জন : ১ হাজার ৯৪২ জনকে ছাড়পত্র