সোমবার, ১০ই আগস্ট, ২০২০ ইং ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জুমার খুতবা শোনার গুরুত্ব

news-image

নিউজ ডেস্ক : জুমার নামাজ বা ‘শুক্রবারের নামাজ’ ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি নামাজ। جُمُعَة (জুমু’আহ) শব্দটি আরবি। এর অর্থ একত্রিত হওয়া, সম্মিলিত হওয়া, কাতারবদ্ধ হওয়া।

মুমিন মুসলমানের সাপ্তাহিক ঈদ সমাবেশ জুমার নামাজে আগেভাগে হাজির হওয়া এবং মনোযোগসহকারে জুমার বয়ান বা খুতবা শ্রবণ করার বিশেষ গুরুত্ব ও ফজিলতের কথা পবিত্র কোরআন ও হাদিসে বলা হয়েছে।

জুমার দিন ও নামাজের গুরুত্ব স্বয়ং মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা কোরআনে ইরশাদ করেছেন,

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا إِذَا نُودِي لِلصَّلَاةِ مِن يَوْمِ الْجُمُعَةِ فَاسْعَوْا إِلَى ذِكْرِ اللَّهِ وَذَرُوا الْبَيْعَ ذَلِكُمْ خَيْرٌ لَّكُمْ إِن كُنتُمْ تَعْلَمُونَ
فَإِذَا قُضِيَتِ الصَّلَاةُ فَانتَشِرُوا فِي الْأَرْضِ وَابْتَغُوا مِن فَضْلِ اللَّهِ وَاذْكُرُوا اللَّهَ كَثِيرًا لَّعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ
‘হে মুমিনগণ! জুমার দিনে যখন নামাজের আজান দেয়া হয়, তখন তোমরা আল্লাহর স্মরণে ছুটে যাও এবং বেচা-কেনা বন্ধ করো। এটা তোমাদের জন্যে উত্তম, যদি তোমরা বুঝ। অতঃপর নামাজ শেষ হলে তোমরা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ো এবং আল্লাহর অনুগ্রহ তালাশ করো ও আল্লাহকে অধিক পরিমাণে স্মরণ কর, যাতে তোমরা সফলকাম হও। (সূরা: জুমআ, আয়াত: আয়াত ৯-১০)।

আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি সুন্দরভাবে ওজু করল, অতঃপর জুমা পড়তে এলো এবং মনোযোগ দিয়ে নীরব থেকে খুতবাহ শুনলো, সে ব্যক্তির এই জুমা ও (আগামী) জুমার মধ্যেকার এবং অতিরিক্ত আরো তিন দিনের (ছোট) পাপগুলো মাফ করে দেয়া হবে। (মুসলিম, হাদিস নম্বর: ৮৫৭)।

হাদিসের বর্ণনায় আছে যে, জুমার জামাতের সময় মসজিদের দ্বারদেশে রহমতের ফেরেশতাগণ অবস্থান গ্রহণ করে কে কখন হাজির হচ্ছে তা লক্ষ্য করেন। যারা নিতান্ত বিনয়, নম্রতা ও বিশেষ মনোযোগর সঙ্গে জুমার হাজিরা দেন তাদের নাম রহমতপ্রাপ্ত বান্দাদের তালিকায় লিপিবদ্ধ করে রাখেন। আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে শান্তির একটি আবহ সৃষ্টি হয়। তাতে ইবাদতে মনোনিবেশ বৃদ্ধি প্রাপ্ত হয়।

নবী করিম (সা.) ইরশাদ করেছেন, জুমার দিন শয়তান বাজারগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে এবং লোকজনকে কাজে কর্মে ব্যস্ত করে তোলে। আর ফেরেশতাগণ মসজিদের দরজায় উপস্থিত হয়ে হাজিরা লিপিবব্ধ করতে থাকেন মুসল্লিগণের পর্যায়ক্রমে উপস্থিতি।

যারা খুতবা শুরু হওয়ার পরে এসে তাড়াহুড়া করে সামনে আসতে চেষ্টা করে, হাদিস শরিফে তাদের প্রতি কঠোর সতর্কবাণী উচ্চারণ করা হয়েছে। ইমাম তিরমিযি কর্তৃক বর্ণিত হাদিসে আছে, যে ব্যক্তি জুমার জামাতে পরে এসে লোকজনের কাঁধ ডিঙ্গিয়ে সামনের দিকে স্থান নিতে চেষ্টা করে সে যেন নিজের জন্য জাহান্নামে যাওয়ার একটি সেতু নির্মাণ করলো।

ইমাম আহমদ (র.) বর্ণনা করেন যে, একদা রাসূল (সা.) জুমার খুতবা দিচ্ছিলেন, এ সময় এক ব্যক্তিকে উপবিষ্ট লোকদের কাঁধ ডিঙ্গিয়ে সামনের দিকে অগ্রসর হতে দেখে অত্যন্ত বিরক্তির সঙ্গে বললেন, ওহে! বসে পড়, দেরিতে এসেছ এবং অন্যদের কষ্ট দিচ্ছ।

খুতবা শ্রবণের গুরুত্ব :

পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, যখন জুমার দিন নামাজের জন্য আহ্বান জানানো হয় (অর্থাৎ আজান দেয়া হয়) তখন দ্রুততার সঙ্গে আল্লাহর জিকির (অর্থাৎ জুমার খুত্বা) শ্রবণের প্রতি ধাবিত হও। আর ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ কর। (সূরা: জুমাআ)।

জুমার দিনে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অর্জনের লক্ষ্যে গোসল করা এবং সাধ্যমত উত্তম পোষাক পরিধান করারও হুকুম দেয়া হয়েছে। জীবন জীবিকার ধান্দায় যাতে জুমার প্রস্ত্ততি ও খুতবা শ্রবণে বিঘ্ন সৃষ্টি না হয়, সে দিকটির প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলা হয়েছে যে, জুমার গুরুত্বের প্রতি অবহেলা প্রদর্শন করে ব্যবসা বাণিজ্যের প্রতি ঝুকে পড়ো না। উত্তম রিজিকদাতা হচ্ছেন মহান আল্লাহ।

উপরে আলোচিত পবিত্র কোরানের আয়াত এবং ও হাদিস প্রমাণ করে যে, জুমার দিন এবং এ পবিত্র দিনের ইবাদত বন্দেগীর প্রতি বিশেষ গুরুত্ব প্রদান ও জীবন জীবিকার দোহাই দিয়ে এই দিনের গুরুত্ব বিনষ্ট করা কোনো ঈমানদার ব্যক্তির কাজ হতে পারে না।

মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে সাপ্তাহিক ঈদ পবিত্র জুমার দিনের গুরুত্ব ও মর্যাদা অনুধাবন করার এবং আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এ জাতীয় আরও খবর

করোনার প্রভাব: রংপুরের যুবক তরুণরা মাঠে নেমেছে ভিন্ন পেশায়

প্রখ্যাত ছড়াকার ও শিশু সাহিত্যিক একেএম শহীদুর রহমান বিশু না ফেরার দেশে চলে গেলেন

সাবমেরিন কেবল মেরামতে ইন্টারনেটে গতি ফিরেছে

সুন্দরবনে মধু ও মোমের উৎপাদন বেড়েছে

আলাউদ্দিন আলীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়ক ফোরলেন হচ্ছে, ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক

দেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে জাম্বুরা খা্ন

করোনায় যেভাবে ফুসফুসের ব্যায়াম করবেন

বিশ্বে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ২ কোটি ছাড়াল

করোনা আক্রান্ত সবচেয়ে বেশি রাজধানীতে, কম মেহেরেপুরে

করোনায় বিশ্বে প্রাণ হারিয়েছে ৭ লাখ ২৯ হাজার